আমিরাতকে পাত্তাই দিলো না ভারত

আমিরাতকে পাত্তাই দিলো না ভারত

67
0
SHARE

এশিয়া কাপের ফাইনালের প্রস্তুতিটা তো ছিলই, এর সাথে আসন্ন টি-২০ বিশ্বকাপের পরীক্ষা-নিরীক্ষারও কাজটা সেরে ফেলল ভারত। প্রতিপক্ষ যখন আরব আমিরাত। ম্যাচটি যখন গুরুত্বহীন তখন যা করার সেটাই করেছেন তারা। তিনজন সাইড লাইনের ক্রিকেটার খেলিয়েছেন তারা এ ম্যাচে। পেস বোলার ভুবেনেশ্বর ও দুই স্পিনার হরভোজন সিং ও পাওয়ান নেগি খেলেছেন ম্যাচে। কিন্তু এতে ভারতের সহজ জয়ে কোনো ঝামেলা হয়নি। অনায়াসেই জিতে যায় তারা ম্যাচ ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে।
মিরপুরে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচে টসে জিতে আমিরাত সিদ্ধান্ত নিয়েছিল প্রথম ব্যাটিংয়ের। কিন্তুভারতের বোলিংয়ের সামনে সুবিধাই করতে পারেনি তারা। বিশেষ করে অন্য ম্যাচগুলোতে ব্যাটসম্যানরা যে সাফল্য দেখিয়েছেন এ ম্যাচের, তার ছিটেফোঁটাও প্রদর্শন করতে পারেনি। এতে শেষ পর্যন্ত সংগ্রহ করেছিলেন তারা ৮১ রান ৯ উইকেটে। ভারতীয় বোলারদের তোপের মুখে দুইজন ব্যাটসম্যান ডাবল ফিগারে যেতে সক্ষম হয়েছিল। একজন আমিরাতের কৃতী ব্যাটসম্যান সায়মন আনোয়ার ও অন্যজন রোহান মোস্তফা। সায়মন করেন ৪৩ রান এবং রোহান আউট হয়ে যান ১১ রান করে। এ ছাড়া আর সবার নামের পাশে সিঙ্গেল ডিজিট। ভারতীয় বোলারদের মধ্যে ভুবেনেশ্বর লাভ করেন দুই উইকেট। চমৎকার বোলিং করে ৪ ওভারে দুইটি মেডেন ৮ রান দিয়েছেন ওই উইকেট তিনি। এ ছাড়া ভুমরাহ, পান্ডিয়া, হরভোজন সিং, নেগি, যুবরাজ সবাই নেন একটি করে উইকেট। এরপর ৮২ রানের সহজ লক্ষ্যমাত্রা সামনে রেখে খেলতে নেমে ভারতের দুই ওপেনার রুহিত শর্মা ও শেখর ধাওয়ান সূচনা করে এক সময় মনে হচ্ছিল বোধ হয় ১০ উইকেটেই জিতবে তারা। কিন্তু আমিরাতের বোলাররা অন্তত একটি উইকেট নিয়ে ১০ উইকেটে হারের লজ্জা এড়ান। কাদের আউট করেন রুহিত শর্মাকে। ৩৯ করেছিলেন রুহিত। এরপর শেখর ধাওয়ান ও যুবরাজ সিং মিলে ম্যাচটা শেষ করে দেন ১০.১ ওভারে। অর্থাৎ এ ম্যাচে জিতে যায় র‌্যাংকিংয়ের এক নম্বরে থাকা দলটি ৯.৫ ওভার বল হাতে রেখেই। ধাওয়ান ২০ বলে ১৬ এবং যুবরাজ সিং ১৪ বলে ২৫ রান করে থাকেন অপরাজিত।
আমিরাত ইনিংস: ৮১/৯, ভারত ইনিংস : ৮২/১
ফল : ভারত ৫৯ বল হাতে রেখে ৯ উইকেটে জয়ী।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY