হাসিনার ষড়যন্ত্রে কাঁদছে সুন্দরবন, হাসছে ভারতীয় শকুন, লজ্জিত বাংলাদেশ!!

হাসিনার ষড়যন্ত্রে কাঁদছে সুন্দরবন, হাসছে ভারতীয় শকুন, লজ্জিত বাংলাদেশ!!

196
0
SHARE

কাঁদছে সুন্দরবন, হাসছে ভারতীয় শকুন, লজ্জিত বাংলাদেশ!!

চুপিসারে চুক্তি সাক্ষর হয়ে গেলো রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র চুক্তি। আর এই চুক্তি সাক্ষরের মধ্য দিয়েই ধ্বংস করে দেওয়া হল প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি সুন্দরবন। রামপাল কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের নামে বিগত কয়েকবছর ধরেই সুন্দরবন নিয়ে চলতে থাকে গভীর ষড়যন্ত্র। আগুন লাগানো, তেলের ট্যাংক ডুবানো থেকে শুরু করে বহু ষড়যন্ত্র চলতে থাকে সুন্দরবনকে নিয়ে। অবশেষে আজ বর্তমান অবৈধ সরকার সকল ষড়যন্ত্র সমাপ্তি ঘটিয়ে দাদাদের হাতে তুলে দিলেন সুন্দরবন।

গত কয়েকবছরে বাংলাদেশের সুশীল সমাজকে দেখলাম কতখানি প্রতিবাদ করেছেন সুন্দরবনের এই সকল ষরযন্ত্রের বিরুদ্ধে। কাউকে দেখলাম না শক্ত কোন অবস্থান নিতে এই ষরজন্ত্রের বিরুদ্ধে। বরাবরের মত এবারো সুশীল সমাজ নীরব অবস্থানে রয়েছেন।

আজ আর মাওলানা ভাসানির মতো কোন নেতা নেই যিনি লক্ষ লক্ষ মানুষকে নিয়ে তিস্তার পানির আন্দোলনের মতই সুন্দরবন ধ্বংসের বিরুদ্ধে আন্দোলন করবেন!!

আজ শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মতো কোন রাষ্ট্রপ্রধান ও নেই যিনি ভারতের দিকে হুংকার তুলে বলবেন, “আমার ভূখণ্ডের দিকে চোখ তুলে তাকালে চোখ উপড়ে ফেলবো “!!

আজ রয়েছেন শেখ মুজিবের মতো মীরজাফর নেতারা যারা লক্ষ লক্ষ মানুষের সামনে মিথ্যে দেশপ্রেমের চাপাবাজির হুংকার ছেড়ে মাঝরাতে দেশকে বিক্রি করে দেয় অন্যদেশের কাছে!!

অসহায় সুন্দরবন হাহাকার করে স্বার্থপর বাংলাদেশীদের কাছে বাচার আকুতি জানিয়ে নিজেকে শেষ রক্ষা করতে না পেরে আজ ভারতের কাছে ধর্ষিতা হয়ে মৃত্যুবরন করলো।

এভাবে একেক করে এই সোনার বাংলাদেশ চলে যাচ্ছে ভারতের ভূখন্ডে। পুরা দেশটাকে বিক্রি করে দিলো অবৈধ সরকার।

হে আল্লাহ তোমার কাছে একজন খালিদ বিন উয়ালিদ চাইনা, চাইনা একজন ওমর (র:), শুধুমাত্র এই ফরিয়াদ করি অন্তত একজন জিয়াউর রহমান পাঠাও এই বাংলাদেশে আরেকটিবারের জন্যে ভারতীয় শকুনিদের বিষাক্ত ছোবল থেকে আমার সোনার বাংলাকে মুক্ত করতে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY