আওয়ামী লীগ এখন ইনুলীগে পরিণত হয়েছে: রিজভী আহমেদ

আওয়ামী লীগ এখন ইনুলীগে পরিণত হয়েছে: রিজভী আহমেদ

158
0
SHARE

আওয়ামী লীগ এখন ইনুলীগে পরিণত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিয়ির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।
তিনি বলেন, দেশের বর্ষিয়ান রাজনীতিবিদ বাবু সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত নিজের দল আওয়ামী লীগ সম্পর্কে বলেছেন, আওয়ামী লীগ এখন বামলীগে পরিণত হয়েছে। আমার মনে হয় তিনি যথার্থই বলেছেন, তবে তা আরো যথার্থ হতো যদি বলতেন আওয়ামী লীগ এখন ইনুলীগে পরিণত হয়েছে।
সোমবার বেলা সাড়ে এগারটার দিকে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
রিজভী বলেন, বর্তমান ভোটারবিহীন সরকার ভংঙ্কর চক্রান্তজালে দেশকে আটকে রাখতে চাচ্ছে। নতুন নতুন কুটচাল দিয়ে অবৈধ ক্ষমতাকে ধরে রেখেছে। দেশ থেকে জাতীয়তাবাদী শক্তিকে নিশ্চিহ্ন করার জন্য নীল নক্শা অনুযায়ী একের পর এক ফাঁদ তৈরী করতে জ্ঞাত অজ্ঞাত বিভিষিকা নামিয়ে আনা হয়েছে সারাদেশব্যাপী। খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমানকে নানাভাবে পর্যদুস্ত করতে প্রতিহিংসার ছোবল দিয়ে যাচ্ছেন বিরতিহীনভাবে।
তিনি বলেন, এই সরকারের আন্দোলনের ফসল ১/১১ এর মঈনউদ্দন-ফখরুদ্দিনের সরকার তারেক রহমানের ওপর চালিয়েছে নিষ্ঠুর ও বর্বর নির্যাতন। এরই ধারাবাহিকতায় এখনও পর্যন্ত চলছে তাঁর ওপর নানামূখী মিথ্যা মামলা মোকদ্দমা, হুমকি, মিথ্যাচার ও কুৎসা রটনাসহ এখন খালাস পাওয়া একটি মামলায় আদালতের কাঁধে বন্দুক রেখে একেবারে অন্যায় অন্যায্যভাবে সাজা দেয়া হয়েছে।
বিএনপির এই নেতা বলেন, আসলে এই সরকার এগিয়ে চলেছে এক মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে। সেই দুরভীসন্ধিমূলক পরিকল্পনা হচ্ছে বাংলাদেশের রাজনীতির দৃশ্যপট থেকে বেগম খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমানকে সরিয়ে দেয়া। এজন্যই দেশব্যাপী নানাধরণের নি:শ্বাসরোধকারী, জীবনসংহারী সহিংস রক্তপাতের ঘটনা ঘটানো হচ্ছে। গুম আর বন্দুকযুদ্ধের নামে মানুষ হত্যার ভয়ংকর প্রবণতাকে টিকিয়ে রাখার পরেও দেশে ভয়াবহ সন্ত্রাসের নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে উগ্রবাদী জঙ্গীগোষ্ঠীর রক্তঝরা তান্ডবে।
আওয়ামী লীগ এখন আর একটি রাজনৈতিক দল নয় বলে মন্তব্য করে রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগ তার ঐতিহ্য হারিয়ে ফেলে ক্ষমতার লালসায় দু:শাসনের মাধ্যমে দেশের জনগণকে বিষম মরণঘূর্নিতে ফেলে দিয়েছে। ফলে পথবিচ্যুৎ এই দলটি বহুত্ত¡বাদী গণতন্ত্র, সার্বভৌমত্ব, স্বাধীনতা সবকিছুকে জলাঞ্জলি দিয়েছে এবং দলটির প্রধান দেশের প্রধানমন্ত্রী পার্শ্ববর্তী একটি দেশের পক্ষে নিজেকে বাংলাদেশের কেয়ারটেকারে পরিণত করেছেন।
আটককৃত বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে নতুন মামলা দিয়ে পুনরায় আটকে রাখার ন্যায়নীতি বিবর্জিত কর্মকান্ড যেন সরকারের মজ্জাগত হয়ে গেছে। এই ধ্বংসরাজ সরকার একদিকে বন্দুকযুদ্ধের নামে বিএনপিসহ বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীকে হত্যা, পাইকারী গ্রেফতার এবং পুলিশী নির্যাতনের শিকার হওয়াচ্ছেন আবার অন্যদিকে নতুন নতুন মিথ্যা মামলা সৃষ্টি করে বিরোধী দলের নেতাকর্মীকে দীর্ঘদিন ধরে আটকে রাখার পীড়ণ নির্যাতনের এক অভিনব নিষ্ঠুর কৌশল অবলম্বন করছে বলে অভিযোগ করেন রিজভী।
সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ডা. জেড এম জাহিদ হোসেন, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সহ দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু, নির্বাহী কমিটির সদস্য শাম্মী আখতার, স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র সহ সভাপতি মুনির হোসেন প্রমুখ ।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY