ভারতের রেল বাজেট বাড়েনি যাত্রী ভাড়া

ভারতের রেল বাজেট বাড়েনি যাত্রী ভাড়া

82
0
SHARE

ভারতের নতুন বাজেটে রেলের যাত্রী ভাড়া বাড়ানো হয়নি। বাড়েনি পণ্য পরিবহনের ভাড়াও। বরং যাত্রীদের নিরাপত্তা ও স্বাচ্ছন্দ্য প্রদানে জোর দেওয়া হয়েছে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের এই বাজেটে।
কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী সুরেশ প্রভু গতকাল বৃহস্পতিবার ভারতের লোকসভায় নতুন অর্থবছরের রেল বাজেট ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, এ বাজেটের লক্ষ্য হলো মানুষের চাহিদা পূরণ করা। বাজেটে অর্থ উপার্জনের জন্য বিকল্প পথও বেছে নেওয়া হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
বাজেট বক্তৃতায় সুরেশ প্রভু বলেন, আগামী ২০২০ সালের মধ্যে যখন-তখন মিলবে রেলের টিকিট। বাড়বে ট্রেনের গতিবেগ, প্রতি ঘণ্টায় চলবে ৮০ কিলোমিটার গতিতে। রেলের লেভেল ক্রসিংয়ে কোনো রক্ষী থাকবে না। রেল খাতকে নতুন দিশা দেখাতেই এ উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।
রেলমন্ত্রী জানান, মহিলা ও প্রবীণ নাগরিকদের জন্য এ বছর থেকে প্রতিটি ট্রেনে লোয়ার বার্থ (নিচের শয়ন যান) দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে। মহিলাদের জন্য নিরাপত্তা জোরদার করতে ৩৩১টি রেলস্টেশনে বসানো হচ্ছে অতিরিক্ত সিসিটিভি। ৪০০টি স্টেশনে চালু করা হবে ওয়াইফাই ব্যবস্থা। চালানো হবে শীতাতপনিয়ন্ত্রিত দোতলা ট্রেন। যাত্রীদের বিনোদনের জন্য চালু করা হবে এফএম রেডিও। খাবারে আনা হবে পরিবর্তন। শিশুদের জন্য থাকবে আলাদা খাবার।
সুরেশ প্রভু বলেন, স্টেশনগুলোতে স্থানীয় অর্থাৎ রাজ্যের আঞ্চলিক ভাষায়ও শোনা যাবে ট্রেন চলাচলের খবর। আগামী তিন বছরের মধ্যে রেল দুর্ঘটনা শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনা হবে। তিনি বলেন, নতুন বাজেটে দুই হাজার কিলোমিটার রেলপথে সোলার বা সৌরবিদ্যুতের মাধ্যমে ট্রেন চালানোরও উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
রেলমন্ত্রী বলেন, নতুন অর্থবছরে চালু করা হবে চারটি নতুন ট্রেন। এর মধ্যে ‘উদয়’ নামে ডবল ডেকার বা দোতলা ট্রেন, ‘হাম সফর’ নামে শীতাতপনিয়ন্ত্রিত এসি ট্রেন ও ঘণ্টায় ১৩০ কিলোমিটার গতিবেগসম্পন্ন তেজস ট্রেন থাকবে। এ ছাড়া মুম্বাই থেকে আহমেদাবাদ পর্যন্ত বুলেট ট্রেন চালানোর কাজও শুরু হবে নতুন অর্থবছরে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY